ফরমুলা ই-রেস চ্যাম্পিয়নশীপে রোবট!

robotরোবটের ড্রাইভিংয়ে ফরমুলা ই রেস চ্যাম্পিয়নশীপ করার ঘোষণা দিয়েছে ফরমুলা ই রেসের আয়োজকরা। সাধারণভাবে ভিডিও গেইমার কোন ব্যক্তির পরিচালনায় ই-রেস চ্যাম্পিয়নশীপ আয়োজন করে আসছে ফরমুলা ই। তবে আগামী বছর থেকে ড্রাইভার ছাড়া রেস আয়োজনের ঘোষণা দিয়েছে তারা। যেখানে বিশেষজ্ঞ ও শখ করে ভিভিও গেইমস খেলে থাকেন এমন সবাই অংশ গ্রহণ করতে পারবেন। ফরমুলা ই এর চিফ এক্সিকিউটিভ অ্যালিজান্ড্রো আগাগ বলেছেন রোবট রেস বিশ্বের সব বৈজ্ঞানিক উদ্ভাবনী ও টেকনোলজির আবিস্কারক ও প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য একটি উন্মুক্ত প্রতিযোগিতা।

এরই মধ্যে অনেক টেকনোলজি প্রতিষ্ঠান এ ধরণের কার তৈরি করছেন। যা রোবটের মাধ্যমে পরিচালিত হবে। এমন একটি প্রতিষ্ঠান কিনটিক। প্রতিষ্ঠানটি রোবট রেসে ফরমুলা ই এর সহযোগী।

কিনটিক এর প্রতিষ্ঠাতা ডেনিস এসভার্ডলভ বলেছেন তিনি বিশ্বাস করেন ভবিষ্যতে বিশ্বের সব গাড়ি রোবটের মাধ্যমে চলবে। আর এসব গাড়িতে জ্বালানী হিসেবে বিদ্যুৎ ব্যবহৃত হবে যা পরিবেশের উন্নয়ন ঘটাতে সহায়তা করবে।

ডেনিস বলেন রোবট রেসের মাধ্যমে টেকনোলজি খাতে মানুষের যে উদ্ভাবনীর বিপ্লব ঘটেছে তা উদযাপন করা হবে।

গত দুই সিজন ধরে ফরমুলা ই রেস অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এবারের লন্ডন ফরমুলা ই রেস ২০১৬ সালের জুনে বেটারসিয়া পার্কে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। তবে স্থানীয়রা পার্কে রেসটি অনুষ্ঠানের বিরোধীতা করছে।

ফসল নজরদারিতে ড্রোন

Dronমাঠের শষ্য দেখভালের জন্য ড্রোন তৈরি করছে চীনের বিখ্যাত ড্রোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ডিজেআই। শষ্য ক্ষেতে নজরদারি চালাতে তৈরি বিশেষ ধরণের এ ড্রোনের নাম দেওয়া হয়েছে আগরাস এমজি-১। বিশ্বের অনেক দেশে শষ্য ও খামারের গবাদি পশু দেখভালের জন্য ড্রোন ব্যবহৃত হয়ে আসছে।

নিজেদের ওয়েবসাইটে প্রতিষ্ঠানটি কৃষিখাতে ব্যবহারের জন্য বিশেষ ধরণের ড্রোন বাজারজাত করার কথা জানিয়েছে। এতে বলা হয়েছে, সাধারণভাবে নজরদারি চালানো ড্রোনের চেয়ে ৪০ গুণ বেশি কার্যকরী ও দক্ষ হবে এটি।

ড্রোনটির আটটি রাডার রয়েছে এবং এটি প্রতি ফ্লাইটে ১০ কেজি পর্যন্ত ফ্লুইড বহন করতে সক্ষম। একটানা মাত্র ১২ মিনিট উড়তে পাড়বে এটি।

ধুলা ও পানি প্রতিরোধক হবে ডিজেআই’র ড্রোনটি। ব্যবহারকারী চাইলে এটি ভাঁজ করে রাখতে পারবেন। তুলনামূলকভাবে কম ক্ষয় হয় এমন ধাতু দিয়ে তৈরি করা হয়েছে আগরাস এমজি-১।

প্রাথমিকভাবে এ ড্রোন শুধু চীন ও দক্ষিণ কোরিয়ায় কৃষক ও খামার পর্যায়ে ব্যবহারের জন্য দেওয়া হবে। ধারণা করা হচ্ছে এর দাম হবে ১৫ হাজার মার্কিন ডলার।

চীনের এ জায়ান্ট ড্রোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ডিজেআই ২০১৪ সালে ৫০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের ড্রোন ব্যবসা করেছে। এ বছর প্রতিষ্ঠানটি এক বিলিয়ন মার্কিন ডলারের ড্রোন বিক্রির লক্ষ্য ঠিক করেছে।

সেলিব্রিটি হলেন সফটওয়্যার পাইরেসি করে!

sofসফটওয়্যার পাইরেসির মামলায় আদালতে অভিযুক্ত এক চেক নাগরিক ইয়াকুব এখন সেলিব্রিটি। এর আগে পাইরেসির দায়ে চেক রিপাবলিকের একটি আদালত ইয়াকুবকে তিন বছরের জেল দেন। বিচারক বলেন, আর্থিক বিষয়ে মিমাংসা করতে হলে তা সিভিল কোর্টে যেতে হবে। সফটওয়্যার পাইরেসির মামলায় বিশ্বের জায়ান্ট প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার মতো অর্থ ছিল না ইয়াকুবের। তার পাইরেসির কারণে শুধু মাইক্রোসফটেরই দেড় লাখ ইউরো ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

মাইক্রোসফট, এইচবিও, সনি, টোয়েন্টিথ সেঞ্চুরি ফক্সের মতো প্রতিষ্ঠান নিয়ে গঠিত বিজনেস সফটওয়্যার অ্যালায়েন্স (বিএসএ) জোট প্রতিষ্ঠানগুলোর ইয়াকুবের কাছ থেকে ক্ষতিপূরণ পাওয়া যাবে না ভেবে তাকে দিয়ে সফটওয়্যার পাইরেসিবিরোধী একটি ভিডিও তৈরি করেছিল।

শর্ত ছিল দুই মাসের মধ্যে ওই ভিডিওটি দুই লাখ বার ভিউ হতে হবে, না হলে মামলার শাস্তি ভোগ করতে হবে ইয়াকুবেকে। অর্থের অভাবে অভিনব শাস্তি মেনে নেন ৩০ বছর বয়সী ইয়াকুব।

পরে ইউটিউবে ভিডিওটি আপলোডের ২৪ ঘন্টার কম সময়ের মধ্যে এর ভিউ দুই লাখ ছাড়িয়েছে যায়। বর্তমানে এর ভিউ চার লাখ ছাড়িয়েছে। ভিডিওটির নাম দেওয়া হয়েছে দ্য স্টোরি অব মাই পাইরেসি।

ওই ভিডিওটিতে পাইরেসি না করার আহ্বান জানিয়েছেন ইয়াকুব। ভিডিওতে তার পাইরেসি করা ও ধরা পরার বিভিন্ন বিষয় দেখানো হয়েছে।

কুসুম্বা মসজিদ সংস্কারের অভাবে হুমকির মুখে

kusumba-1নওগাঁ প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশের প্রাচীন ঐতিহ্যের নিদর্শন গুলোর মধ্যে অন্যতম নওগাঁ জেলার মান্দা উপজেলায় অবস্থিত ৬ গম্বুজ বিশিষ্ট ঐতিহাসিক কুসুম্বা মসজিদ। দীর্ঘদিন সংস্কারের অভাবে মসজিদটির গম্বুজ গুলি হুমকীর সম্মুখিন হয়ে পড়ায় যে কোন মূহুর্তে ধ্বসে পড়ে বড় ধরণের দূর্ঘটনার আশংকা করছেন মসজিদের মুসল্লী ও আগত দর্শনার্থীরা।

বাংলাদেশের পাঁচ টাকার নোটে মুদ্রিত মসজিদের ছবিটি নওগাঁর ঐতিহাসিক কুসুম্বা মসজিদের। ১৫৫৮ সালে জনৈক সোলায়মান মসজিদটি নির্মাণ করেন। প্রায় ৪শ ৬০ বছরের প্রাচীন পাথরের নির্মিত মসজিদটি ৬ গম্বুজ বিশিষ্ট। সম্প্রতি ঘন ঘন ভূমিকম্প হওয়ায় মসজিদটি নিয়ে শংকিত হয়ে পড়েছেন এলাকাবাসী।

জানাগেছে, মসজিদটি শেষ বারের মত ১৯৬৪ সালে সংস্কার করা হয়। এরপর দীর্ঘদিন অতিবাহিত হলেও ঐতিহাসিক গুরুত্বপূর্ণ এই মসজিদটির আর কোন সংস্কার করা হয়নি। ফলে মসজিদটির ৬টি বিশাল আকারের গম্বুজ আজ হুমকির সম্মুখিন। মসজিদের উত্তর-পূর্ব কোনের বুরুজটিতে বৃষ্টি হলে পানি প্রবেশ করে। দীর্ঘ সময় সেই পানি ভিতরে থাকায় বর্ষা মৌসুমে বুরুজটি শ্যাওলায় আচ্ছাদিত হয়ে যায়। এতে পাথরের রং অনেকটাই ফ্যাকাশে হয়ে গেছে। মসজিদটির ভিতরের আরো বেহাল অবস্থা। বিশাল বিশাল গম্বুজের খিলানে ফাটলের সৃষ্টি হয়েছে। গম্বুজের গায়ে ফাটল দেখা দিয়েছে সৃষ্টি হয়েছে ছত্রাকের। ঝরে পড়ছে খিলান ও গম্বুজের ইট-সুরকি। মসজিদের প্রাচীন ৫টি গম্বুজ আজ হুমকির সম্মুখিন। যে কোন মূহুর্তে ধ্বসে পড়তে পারে। ১৮৯৮ সালের এক ভয়াবহ ভূমিকম্পে মসজিদটির একটি গম্বুজ ধ্বসে পড়ে। ১৯৬৪ সালে সেই গম্বুজটি পুনরায় নির্মাণ করা হয়। বর্তমানে ওই গম্বুজটি এখনো অক্ষত রয়েছে।

প্রায় ৫০ বছর আগে প্রতœতত্ত্ব অধিদপ্তর কুসুম্বা মসজিদ অধিগ্রহণ করে। এতে স্থানীয় ভাবে মসজিদের সব ধরনের সংস্কার কাজ বন্ধ হয়ে যায়। অভিযোগ আছে বার বার মসজিদটি প্রতœতত্ত্ব অধিদপ্তর পরিদর্শন করলেও সংস্কারে কোন জরুরি পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি।

কুসুম্বা মসজিদের মোয়াজ্জেন মোস্তাফিজুর রহমান জানান, দিন যতই যাচ্ছে মসজিদের গম্বুজগুলি ততই হুমকির কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে। মসজিদে প্রতিদিন অনেক দর্শনার্থী আসে। অনেকেই সমজিদের ভিতরে নামাজ আদায় করেন। ক্ষতিগ্রস্থ গম্বুজ গুলি ধ্বসে পড়লে যে কোন মূহুর্তে জান-মালসহ শেষ হয়ে যেতে পারে এই প্রাচীন নিদর্শনটি। নওগাঁর মান্দা উপজেলার প্রাচীন ঐতিহাসিক কুসুম্বা মসজিদটি এখনই জরুরী ভাবে সংস্কার করার দাবী জানিয়েছেন মসজিদের নিয়মিত মুসল্লী, এলাকাবাসী ও দর্শনার্থিরা।

প্রতœতত্ত্ব অধিদপ্তরে রাজশাহীর আঞ্চলিক পরিচালক বদরুল আলম জানান, গত অর্থ বছরেও কুসুম্বা মসজিদটি সংস্কারের জন্য অর্থ বরাদ্দ চাওয়া হয়েছিল। কিন্তু বরাদ্দ আসেনি। এবারও অর্থ বরাদ্দ চাওয়া হবে। বরাদ্দ পাওয়া গেলে সংস্কার করা হবে।

মেহজাবিন

mehjabinবাংলাদেশী মডেল ও অভিনেত্রী-মেহজাবিন

মীম

www.binodonnews.com

www.binodonnews.com

বাংলাদেশী মডেল ও অভিনেত্রী-মীম

১১ ডিসেম্বর ‘প্রজাপতি মেলা-২০১৫’

Projapoti‘উড়লে আকাশে প্রজাপতি, প্রকৃতি পায় নতুন গতি’ শীর্ষক প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে আগামী ১১ ডিসেম্বর জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হবে ‘প্রজাপতি মেলা-২০১৫’।

মেলার আহ্বায়ক ও প্রাণিবিদ্যা বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক মনোয়ার হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

অধ্যাপক মনোয়ার হোসেন জানান, ১১ ডিসেম্বর শুক্রবার সকাল ৯টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের জহির রায়হান মিলনায়তন প্রাঙ্গণে দিনব্যাপী এ মেলার উদ্বোধন করবেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম।

মেলায় অন্যান্য আয়োজনের মধ্যে থাকবে— শিশু-কিশোরদের জন্য প্রজাপতির ছবি আঁকা প্রতিযোগিতা, প্রজাপতি বিষয়ক আলোকচিত্র প্রতিযোগিতা, প্রজাপতির হাট দর্শন, প্রজাপতির আদলে ঘুড়ি উড্ডয়ন, প্রজাপতি চেনা প্রতিযোগিতা, প্রজাপতি বিষয়ক ডকুমেন্টরি প্রদর্শনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান।

এ ছাড়া এবারের মেলার প্রধান আকর্ষণ হবে ‘বাটারফ্লাই ব্রিডিং সেন্টার এ্যান্ড পার্ক’-এর উদ্বোধন।

উল্লেখ্য, অধ্যাপক মনোয়ার হোসেন প্রজাপতির সংরক্ষণ, প্রজনন ও গবেষণার লক্ষ্যে ২০১০ সাল থেকে ধারাবাহিকভাবে ‘প্রজাপতি মেলা’ আয়োজন করে যাচ্ছেন। ২০১৪ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়াজেদ মিয়া গবেষণা কেন্দ্রের পাশে ‘বাটারফ্লাই ব্রিডিং সেন্টার এ্যান্ড পার্ক’ তৈরির উদ্যোগ নেন তিনি। পার্কটি এবারের মেলায় উদ্বোধন করা হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের আয়োজনে প্রতিবারের ন্যায় এবারও মেলার সার্বিক সহযোগিতায় রয়েছে ‘প্রকৃতি ও জীবন ফাউন্ডেশন’।

৫ বছর জেল, জরিমানা ১০ লাখ টাকা

Sundarban_Tigerসর্বোচ্চ শাস্তি পাঁচ বছর জেল ও ১০ লাখ টাকা জরিমানার বিধান রেখে ‘বাংলাদেশ জীববৈচিত্র্য আইন, ২০১৫’ এর চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার নিয়মিত সাপ্তাহিক বৈঠকে ২৩ নভেম্বর/সোমবার আইনটির চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয় বলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।

বৈঠক শেষে এ আইনে শাস্তির বিধান সম্পর্কে মন্ত্রিপরিষদ সচিব শফিউল আলম বলেন, ‘‘আইনটির ৩৮ ধারায় উল্লেখ রয়েছে- ‘কোনো ব্যক্তি বা সংস্থা জাতীয় কমিটির পূর্বানুমোদন ব্যতীত বাংলাদেশে পাওয়া যায় এমন কোনো জীববৈচিত্র্য বা জীব সম্পদ বা তৎবিষয়ে জ্ঞান সংগ্রহ করেন বা অধিকারে নেন বা উহাদের বাণিজ্যিক ব্যবহার-জীব সমীক্ষা বা জীব পরীক্ষণ কার্যক্রম পরিচলনা করেন বা উহাদের আহরণের কার্যক্রমের সহিত যুক্ত হন; তাহলে তিনি অনধিক পাঁচ বছরের কারাদণ্ড বা ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হতে পারেন’।’’

মন্ত্রিপরিষদ সচিব আরও বলেন, ‘বাংলাদেশ জীববৈচিত্র্য আইন আগেও মন্ত্রিসভায় এসেছিল (২০১৩ সালে)। অনেক পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর এটা চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য পেশ করা হয়।’

তিনি বলেন, ‘বিপুল জনসংখ্যার এই দেশে আমাদের দৈনন্দিন জীবনযাত্রাসহ জীবন-জীবিকা এবং জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত প্রতিটি ক্ষেত্রে জীববৈচিত্র্যের গুরুত্ব আছে। এসব গুরুত্বের কথা বিবেচনা করেই আইনটি প্রণয়ন করা হয়েছে।’
শফিউল আলম আরও বলেন, “সংবিধানের ১৮(ক) অনুচ্ছেদে বলা আছে, ‘জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ করা রাষ্ট্রের একটা দায়িত্ব’। তাই এক্ষেত্রে আমাদের বাধ্যবাধকতা আছে।”

শেষ পর্যন্ত মগজ চুরি!

MOGOJযুক্তরাষ্ট্রের ইন্ডিয়ানা অঙ্গরাজ্যের ২৩ বছর বয়সী ডেভিড চার্লস চৌর্যবৃত্তিতে নয়া মাইলফলক স্থাপন করেছে। বুদ্ধিবৃত্তিক চৌর্যবৃত্তির মাধ্যমে অনেকে অন্যের লেখা সাহিত্য-শিল্পকর্ম, বৈজ্ঞানিক সূত্র বা এধরনের বিষয়বস্তু চুরি করে থাকে।
কিন্তু ডেভিড চুরি করেছে রীতিমতো মেধাস্বত্ব আবাসভূমিটাকেই- অর্থাৎ মস্তিষ্ক। এক হাসপাতালভিত্তিক যাদুঘরে রাখা বেশ কয়েকটি মগজ চুরি করে তিনি অনলাইন মার্কেটিংয়ে বিক্রিও করে দিয়েছিল।

তবে শেষ পর্যন্ত পুলিশের হাতে ধরা পড়তেই হয়েছে তাকে। সম্প্রতি আদালত তাকে এক বছরের বন্দিত্বের শাস্তি দিয়েছেন। এছাড়া মুক্ত হওয়ার পরও দুই বছর তাকে থাকতে হবে নিয়মিত নজরদারির অধীনে।

ম্যারিয়ন কাউন্টি প্রসিকিউটরস অফিস জানায়, ধরা পড়ার পর চার্লস স্বীকার করে যে ইন্ডিয়ানা মেডিকেল হিস্টরি মিউজিয়ামে একাধিকবার হানা দিয়ে মানুষের মগজ ও অন্যান্য অঙ্গপ্রত্যঙ্গ তথা টিস্যুভর্তি জার চুরি করেছে সে।

ওই হাসপাতালটি ১৮৪৮ সালে প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিল মস্তিষ্ক বিকৃতদের (উন্মাদ-পাগল) চিকিৎসার জন্য। পরে একে যাদুঘরে রূপান্তর করা হয়। এখানে রাসায়নিকে সংরক্ষিত করে রাখা মানুষের বিভিন্ন অঙ্গ প্রত্যঙ্গ বিশেষ করে মস্তিষ্ক প্রদর্শনের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

চার্লসের অপকর্ম ধরা পড়ে ২০১৩ সালের ডিসেম্বরে। ওই সময়ে সান ডিয়েগোর এক ব্যক্তি অলাইন কেনাকাটায় (ই-বে) মানুষের মস্তিষ্কের অংশ বিশেষ ভরা ৬ টি জার (কাঁচের পাত্র) কেনেন ৬০০ ডলারে। তিনি ওই যাদুঘরকেন্দ্রিক একটি অনলাইনভিত্তিক গবেষণা করছিলেন। তিনি দেখতে পান তার কেনা জারগুলো যাদুঘর থেকে চুরি যাওয়া জারগুলোর সঙ্গে মিলে যাচ্ছে। তিনি বিষয়টি পুলিশে জানান।

অবশ্য মগজ চোরকে ধরা এত সহজ ছিল না। তবে সব অপরাধীর মতো সেও কিছু ক্লু রেখে গিয়েছিল ঘটনাস্থলে। পুলিশ তদন্ত করে যাদুঘর থেকে চার্লসের রক্তাক্ত আঙুলের ছাপওয়ালা একটি কাগজ পায়। ওই ফিঙ্গারপ্রিন্ট সূত্রেই তাকে পাকড়াও করা হয়। আদালত সূত্র জানায়, পরে মানব টিস্যুভর্তি আরও ৮০টি জার উদ্ধার করা হয়। চার্লস শুধু মানব অঙ্গ-প্রত্যঙ্গই নয়- কিছু যন্ত্রপাতি এবং ঐতিহাসিক জিনিসপত্রও চুরি করেছিল।

১ কোটি ডলার পাচ্ছে বিসিবি

BCB-3গেল বছর ক্রিকেটের বিশ্ব সংস্থা আইসিসিকে বিভিন্ন কৌশলে নিজেদের হাতের মুঠোয় রেখেছিল ৩ শক্তিশালী সদস্য- ভারত, ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া। ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হয় আইসিসির বাকি ৭ পূর্ণ সদস্য দেশকে শান্ত রাখতে তখনই ঘোষণা দেয়া হয়েছিল সান্ত্বনা পুরস্কার দেয়ার। তারই অংশ হিসেবে টেস্ট ক্রিকেটকে বাঁচিয়ে রাখতে গঠিত তহবিল থেকে সাত সদস্য দেশকে এক কোটি ডলার করে দেবে আইসিসি। সুতরাং আইসিসির পূর্ণ সদস্য হওয়ায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডও (বিসিবি) পাচ্ছে এক কোটি ডলার।

টানা আট বছর ধরে এই অর্থটা দেবে আইসিসি। প্রতি বছর ১.২৫ মিলিয়ন ডলার করে দেয়া হবে প্রতিটি দেশকে। তবে আইসিসি প্রদত্ত এই অর্থ প্রাপ্তির তালিকা থেকে বাদ পড়ছে ভারত, ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার নাম। প্রথম কিস্তির অর্থ প্রদান করা হবে ২০১৬ সালের জানুয়ারিতে। সূত্র : ক্রিকইনফো

ঢাকা স্পোর্টস কার্নিভাল-২০১৫ শুরু

Bad-Ballঅফিসার্স ক্লাবের ৩ দিনব্যাপী ঢাকা স্পোর্টস কার্নিভাল-২০১৫ আজ বৃহস্পতিবার থেকে ক্লাব প্রাঙ্গণে শুরু হয়েছে। প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী ড. শ্রী বীরেন শিকদার। অফিসার্স ক্লাব ঢাকার আয়োজনে এ কার্নিভালে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানের ২৮টি ক্লাবের ৩০০ জন প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করছে। ব্যাডমিন্টন, টেনিস, টেবিল টেনিস ও সাঁতার এ চারটি ইভেন্টে প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিযোগিতায় সবচেয়ে বড় দল নিয়ে অংশগ্রহণ করছে অফিসার্স ক্লাব। এ ক্লাবের পক্ষ থেকে ব্যাডমিন্টন প্রতিযোগিতায় মোট ৪টি দল, টেনিসে ৫টি দল, সাঁতারে ৪টি দল এবং টেবিল টেনিসে ২টি দল অংশগ্রহণ করছে। প্রতিযোগিতা উপলক্ষে ইতোমধ্যে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। প্রতিটি খেলার ভেন্যুকে বর্ণিল সাজে সজ্জ্বিত করা হয়েছে।

অফিসার্স ক্লাবের সহ-সভাপতি পল্লি উন্নয়ন ও সমবায় সচিব এ কাদের সরকার এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আবু আলম মো. শহিদ খান। উপস্থিত ছিলেন ক্লাবের ভাইস চেয়ারম্যানগণ, যুগ্ম সম্পাদকগণ, নির্বাহী কমিটির সদস্যগণ এবং মহিলা কমিটির সম্পাদিকা, সদস্যগণ ও ক্লাব সদস্য সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগ এবং হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতিগণ, সচিব, অতিরিক্ত সচিব, যুগ্ম সচিব ও উপসচিবসহ বিভিন্ন সংস্থার প্রধান এবং সরকারি, আধা-সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ও অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তাবৃন্দ।

২ ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা পেলেন ইসকো

pচলতি মৌসুমের ১ম এল ক্ল্যাসিকোতে লাল কার্ড প্রাপ্ত রিয়াল মাদ্রিদেও তারকা খেলোয়ার ইসকো দুই ম্যাচ নিষেধাজ্ঞা পেয়েছেন। ঘরের মাঠ সান্থিয়াগো বার্নাব্যুতে প্রতিপক্ষ বার্সেলোনার বিপক্ষে খেলার সময় নেইমারের সঙ্গে গুরুতর ফাউল করার অভিযোগে তাকে তাৎক্ষনিকভাবে দেওয়া হয়েছিল লালকার্ড। উক্ত ম্যাচে ৪-০ গোলে হার স্বীকার করতে হয়েছিল রিয়ালকে।

৩-০ গোলে পিছিয়ে থাকা অবস্থায় বদলি ফুটবলার হিসেবে মাঠে নামেন ইসকো। তবে খেলার নির্ধারিত সময়ের মাত্র ৬ মিনিট বাকি থাকতে নেইমারকে প্রচন্ড জোরে লাথি মারেন তিনি। পরে ম্যাচের দায়িত্বে থাকা রেফারি ইসকোকে সরাসরি লাল কার্ড দেখান।

গতকাল বুধবার স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশনের নিকট থেকে পাওয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, রিয়াল তারকা ফুটবলার ইসকোর ওপর জারি করা হয়েছে দুই ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা। ফলে পরবর্তী লিগ খেলায় রিয়ালের পক্ষে খেলতে পাবেন না এই ফুটবল তারকা।

ছবির ঝলক

0113471
Visit Today : 9
Visit Yesterday : 91
Total Visit : 113471
Hits Today : 35
Total Hits : 721368
Who's Online : 1

facebook