আমিরকে চড় মারলেই লাখ টাকা

amir (2)লিউড অভিনেতা আমির খানকে চড় মারতে পারলে এক লক্ষ টাকা পুরস্কার দেয়া হবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন শিবসেনার পঞ্জাব শাখা। ভারতে চললে অসহিষ্ণুতার সব মাত্রা ছাড়িয়ে এমনি একটি ঘোষণা দিলেন শিবসেনা।

এবিষয়ে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের খবরে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে। শিবসেনার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, যে ব্যক্তি সাহস করে আমিরকে চড় মারতে পারবে তাকে দল এক লক্ষ টাকা পুরস্কার দেবে। যেহেতু আমির দেশ ছাড়ার কথা বলেছেন তাই তাকে দেশবিরোধী অ্যাখা দিয়ে পাঞ্জাবে শিবসেনার প্রধান রাজীব টান্ডান নিজেই আমিরকে চড় মেরে লাখ টাকা পুরস্কার নিয়ে যাওয়ার কথা ঘোষণা করেন।

সোমবার একটি অনুষ্ঠানে যোগদান করে আমির খান অসহিষ্ণুতা নিয়ে বলেন, দেশের সাম্প্রতিক পরিস্থিতির জেরে উদ্বিগ্ন তার স্ত্রী। কারণ ছেলেমেয়েদের ভবিষ্যতের জন্য দেশ ছাড়ার কথা বলেছেন কিরণ। এই মন্তব্যের পরেই সমালোচনার ঝড় ওঠে। পরে আমির বলেন, তিনি দেশ ছেড়ে কোথাও যাবেন না।

এদিকে ‘দঙ্গল’ ছবির শ্যুটিং নিয়ে ব্যস্ত আমির এক লুধিয়ানায়। লুধিয়ানায় যেখানে আমির থাকছেন, তার বাইরে বিক্ষোভ দেখাচ্ছে শিবসেনার কর্মী-সমর্থকরা। আমিরের জন্য অতিরিক্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। বিক্ষোভকারীরা আমিরের ছবি ও কুশপুতুল পুড়িয়েছে।

বলিউড তারকা প্রীতি জিনতার বিয়ে!

prity-01-BNCবলিউড তারকা প্রীতি জিনতাকে বিয়ে নিয়ে এরই মধ্যে অনেকবারই জল ঘোলা করতে দেখা গেছে। কবে কার সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধছেন এসব শুধু গুঞ্জনেই সীমাবদ্ধ ছিল। শুধু তাই নয়, সাবেক প্রেমিক ওয়াদিয়ার সঙ্গেও প্রীতির বিয়ে হচ্ছে এমন রটনাও রটে ছিল বলিউডে।

তবে সেসব ছাপিয়ে নতুন খবর হচ্ছে, আগামী বছরই বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন তিনি। পাত্রের নাম জিনি। আমেরিকায় গিয়ে জিনির সঙ্গে পরিচয় প্রীতির। বন্ধুত্ব থেকে প্রেমের দিকে এগিয়ে যায় সম্পর্ক।

জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে তাদের এ সম্পর্ক চলে আসছে। তবে সেটা গোপনে। অবশ্য প্রীতির বন্ধুদের সূত্রে নিশ্চিত হওয়া গেছে মার্কিন মুলুকের এ বন্ধুটির সঙ্গে প্রেমের খবর। এ নিয়ে বলিউড মহলে চলছে জোর আলোচনা।

এ বিষয়ে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হলে প্রীতি বিষয়টি এড়িয়ে যান।

এদিকে সূত্র আরও জানায়, আগামী বছরের শুরুর দিকে আমেরিকা যাবেন প্রীতি। সেখানে ছোট আয়োজনে জিনির সঙ্গে বিয়ের কাজটি সেরে ফেলবেন।

১৯৯৮ সালে বলিউডে পা রাখেন প্রীতি। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে ‘দিল সে, ‘সোলজার’, কাল হো না হো’, ‘কই মিল গেয়া’, ভির জারা’ সহ বেশ কিছু হিট ছবি উপহার দিয়েছেন তিনি। এ মুহূর্তে বলিউডে ব্যস্ততা না থাকলেও ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগের দল ‘কিংস এলিভেন পাঞ্জাব’-এর স্বত্বাধিকারী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন প্রীতি।

কিমের বুকে কেন হাত দিয়েছেন!

kim kardasianসফেদ গাউন পরে সোজা ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে রয়েছেন কিম কার্দাশিয়ান। ডিপ নেক কাটের লাস্যময়ী সুন্দরী পুরোদস্তুর পার্টির সাজে। কিন্তু তার বুকে কেউ যেন হাত দিয়েছেন। আর তাতে একটুও বিরক্ত নন তিনি।

সম্প্রতি নিজের এই ছবি ইন্সটাগ্রামে শেয়ার করছেন কিম। কিমের ভক্তরা সকলেই জানতে চান কে এত সাহসী? কিম নিজেই দিয়েছেন সেই উত্তর। তিনি জানিয়েছেন, পার্টিতে যাওয়ার আগে শেষ মুহূর্তে তাঁর পোশাক ঠিক করে দিচ্ছেন ডিজাইনার। তাই রাগ করার কোনও প্রশ্নই নেই। বরং খুশি কিম।

তিনি এও জানিয়েছেন, কানের দোলা দুলটা জন্মদিনে উপহার দিয়েছেন তাঁর স্বামী। সব মিলিয়ে ভক্তদের সব আশঙ্কাকে উড়িয়ে দিয়ে পার্টি যে বেশ এনজয় করছেন তা ভালভাবেই বুঝিয়ে দিয়েছেন কিম।

চার্লির এইচআইভি পজিটিভ কিন্তু আমাকে জানায়নি!

Charlie-Sheenমঙ্গলবারই হলিউড অভিনেতা চার্লি শিন জানিয়েছিলেন, তিনি এইচআইভি পজিটিভ। ঠিক তার পরের দিনই বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন চার্লির প্রাক্তন বান্ধবী ব্রি ওলসন। প্রাক্তন এই পর্ন তারকার দাবি, ২০১১-এ চার্লির সঙ্গে বহুবার তার শারীরিক সম্পর্ক হয়েছে।

কিন্তু নিজের অসুখের কথা ব্রিকে নাকি কিছুই জানাননি চার্লি। ব্রি-র কথায়, ‘‘আমি চার্লির সঙ্গে এক বছর ছিলাম। প্রায় প্রতিদিনই আমাদের শারীরিক সম্পর্ক হত। কিন্তু কখনও ও আমাকে জানায়নি যে ও এইচআইভি পজিটিভ। আমরা যে কন্ডম ব্যবহার করতাম তাতে শুধুমাত্র প্রেগন্যান্সি আটকানো যায়। এখন তো মনে হচ্ছে খুব বোকার মতো কাজ করেছি আমি।’’

যদিও ব্রিয়ের দাবিকে উড়িয়ে দিয়ে চার্লি জানিয়েছেন, এইচআইভি পজিটিভ হওয়ার পরেও নিয়মিত অসুরক্ষিত যৌন সঙ্গম করেছেন। আর এতে নাকি ওই রোগ ছড়িয়েছে তার সঙ্গে সময় কাটানো দু’জন মাত্র যৌনকর্মীর দেহে। ওই ঘটনা ছাড়া প্রায় প্রতিটি সঙ্গীকেই তিনি নিজের এইচআইভি পজিটিভ হওয়ার কথা জানিয়েছেন।

মঙ্গলবার এনবিসি-র টুডে শো-তে বসে চার্লি শিন জানিয়েছিলেন, “আমি এইচআইভি পজিটিভ। আমাকে ঘিরে রোজকার এই আক্রমণ, এই অর্ধসত্য খুবই ক্ষতিকারক… এ ধরনের গল্পে আমার চারপাশের মানুষের উপরও প্রভাব পড়ছে।”

হলিউড অভিনেতা চার্লি শিনের সমার্থক শব্দটি বোধহয় বিতর্ক। কিংবদন্তি অভিনেতা মার্টিন শিনের ছেলের অভিনয় জীবন শুরু হয়েছিল হলিউডের বেশ কয়েকটি নামজাদা ফিল্মে। কিন্তু, খ্যাতির সঙ্গে সঙ্গে নিজের অনিয়ন্ত্রিত রঙিন জীবন নিয়েও কম জলঘোলা হয়নি। মঙ্গলবার তিনি বলেন, “মোটামুটি বছর চারেক আগে এটা জানতে পারি। এই তিনটে অক্ষর (এইচআইভি) হজম করা সত্যিই কষ্টকর।”

‘প্ল্যাটুন’, ‘ওয়াল স্ট্রিট’, ‘মেজর লিগ’, ‘মানি টকস’ বা ‘বিইং জন ম্যালকোভিচ’-এর মতো বক্স অফিসে সাফল্য পাওয়া ছবিতে এক সময় হলিউড কাঁপালেও তাঁর কেরিয়ার গ্রাফ ক্রমশই নীচের দিকে নামতে থাকে। ফের সাফল্যের মুখ দেখেন টেলি-সিরিজে। তবে তাতেও ফের ভাটার টান আসে ২০১১-তে। জনপ্রিয় সিটকমের ‘টু অ্যান্ড আ হাফ মেন’-এ নির্মাতার সমালোচনা করে সেখান থেকেও বাদ পড়েন। গোল্ডেন গ্লোব জয়ী অভিনেতার শেষের বোধহয় সেই শুরু। সঙ্গী হিসেবে একাধিক পর্নস্টারদের সঙ্গে নাম জড়িয়েছেন তাঁর। এক সময় তো প্রকাশ্যে স্বীকার করেন, দু’জন পর্নস্টারের সঙ্গে একই ছাদের নীচে লিভ-ইন করছেন তিনি। তাঁদেরই একজন ব্রি ওলসন।

মার্কিন অভিনেতা চার্লি শিন এইডসে আক্রান্ত!

Sinটু অ্যান্ড আ হাফ মেন` খ্যাত মার্কিন অভিনেতা চার্লি শিন ঘোষণা করলেন তিনি এইডসে আক্রান্ত। সূত্রের খবর মার্কিন টিভি নেটওয়ার্ক এনবিসিতে প্রচারিত টুডে শোয়ের আগামী পর্বে নিজের এই অসুস্থতার কথা জানাতে চলেছেন শিন।

প্রায় ছয় মাস আগে তার সঙ্গে এই সমস্যা নিয়ে কথা বলেন শিনের কয়েকজন ঘনিষ্ঠ বন্ধু। তবে এখন পর্যন্ত শিনের সঙ্গে সরাসরি এ ব্যাপারে কোনো কথা বলেননি তিনি।
ব্র্যাগম্যান আরো জানান, শিনের এইচআইভি পজিটিভ হওয়ার বিষয়টি অনেকেই জানেন। এখন তার চিকিৎসা চলছে।

গোল্ডেন গ্লোব জয়ী তারকা চার্লি শিন বরাবরই নিজের উচ্ছৃঙ্খল জীবন যাপনের জন্য শিরোনামে এসেছেন। অনিয়ন্ত্রিত যৌনাচার এবং মদ ও মাদকে আসক্তির জন্য সমালোচনার মুখেও পড়তে হয়েছে তাকে।

শিনকে জনপ্রিয়তার শীর্ষে পৌছে দেয়া সিটকম ‘টু অ্যান্ড এ হাফ মেন’ – এর নির্মাতা চাক লরির সঙ্গে জনসম্মুখে কোন্দলে জড়িয়ে পড়েন তিনি। এর জের ধরেই সিরিজটি হঠাত্‍ই ছেড়ে দেন।

ব্র্যাডের সঙ্গে অন্তরঙ্গে জোলি!

brad-pitt-and-angelina-jolieহলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী অ্যাঞ্জেলিনা জোলি বিপাকে পরেছেন! খবরটা একটু চমকে যাওয়ার মতই। ভক্তরা ভালবেশে তাদের ডাকেন ব্রাঞ্জেলিনা নামে। ব্রাড পিটের সঙ্গে স্বামী-স্ত্রীর বন্ধনে বাধা পরেছেন বহু আগেই। তাদের মধ্যে অন্তরঙ্গ সম্পর্ক থাকবে এটাই স্বাভাবিক।

কিন্তু সেটা তাদের পারিবারিক জীবনে থাকলে বেশ ভালোই হত। এবার সেলুলয়েডের পর্দায় একেবারে বাথটাবে অথবা বিছানায় ব্র্যাডের সঙ্গেঅন্তরঙ্গভাবে জড়াজড়ি করলে তাঁর কি অস্বস্তি হবে না! আর এ বিষয়টাই লজ্জায় লাল করে দিচ্ছে জোলিকে। তারা দু’জনে এখন একইসঙ্গে ‘বাই দ্য সি’ ছবিতে অভিনয় করছেন। আর চিত্রনাট্যের প্রয়োজনেই তাদের দুজনের বেশ কিছু ঘনিষ্ঠ দৃশ্য রয়েছে। কিন্তু শুটিং ইউনিটের লোকজন আর ক্যামেররা সামনে ব্র্যাডের সঙ্গে বিছনায় অথবা বাথটবে শুয়ে পরাটা মোটেই সহজভাবে মেনে নিতে পারছেন না জোলি!

তিনি বলেছেন, ‘একটি দৃশ্যে আমি বাথটবে গোসল করেছি। আর ব্র্যাডকে আমি ডাকলাম আদর করতে। সে আমায় আদর করবে কী! বরং, টাওয়েল এনে দিল। আসেল সে আর কিই বা করবে। আমার স্বামী যে!’

অন্যদিকে, তাঁরা স্ক্রিন শেয়ার করেছেন ‘মিস্টার অ্যান্ড মিসেস স্মিথ’ ছবিতে। সেখানেই তাঁদের প্রেম পরিণতি পায়। এ হেন ব্র্যাড নিজের স্ত্রীর সঙ্গে অন-ক্যামেরা যথেষ্ট অপ্রতিভ। জোলি আরও বলেন, ‘দৃশ্য তো শেষ, কিন্তু তখনও আমি বাথটাব থেকে বেরতে পারছি না। কারণ আমার পরনে কিছুই নেই। মিনিটরে গিয়ে যে দৃশ্যটি দেখে নেব সাটও করতে পারছি না। অন্য দিকে ব্র্যাডও অভিনয় শেষ করে তোয়ালে জোগাড় করতেই ব্যস্ত হয়ে পড়ল। তাড়াতাড়ি তোয়ালে এনে আমাকে জড়িয়ে দেয় ও। গোটা সময় ধরে ও তোয়ালে ডিউটিতেই ছিল।

এমন দৃশ্যে জয়ার অভিনয়ের কী এমন দরকার ছিল : শাকিব

shakib-joyaকলকাতার একটি ছবিতে অভিনয়ের পর জয়া আহসানকে নিয়ে যখন সোস্যাল মিডিয়ায় তোলপাড়, তখন এ ব্যাপারে মুখ খুললেন জনপ্রিয় অভিনেতা শাকিব খান। জয়ার মতো শক্তিমান অভিনেত্রীর ছোট একটি চরিত্রে অভিনয় উচিত হয়নি বলেও মনে করেন শাকিব।

জয়া প্রসঙ্গে সংবাদমাধ্যমকে শাকিব বলেন, ‘একটা বিষয়ে কারও কোনো সন্দেহ নেই যে, জয়া আহসান বাংলাদেশের একজন জনপ্রিয় অভিনেত্রী। সামাজিকভাবেও তিনি সবার কাছে ইতিবাচক একটা ভাবমূর্তি ধরে রাখতে পেরেছেন। কিন্তু ‘রাজকাহিনী’ ছবির এই জয়া আহসান আমার কাছে একেবারেই অপরিচিত।
Joya
ছবিতে এমন একটি দৃশ্যে অভিনয়ের তাঁর কী এমন দরকার ছিল, তা আমি আসলেই বুঝতে পারিনি।’

শাকিব বলেন, কলকাতা থেকে কোনো প্রস্তাব পেলেই আমাদের এখানকার অনেকের আর কোনো হুঁশ থাকে না। মনে হয়, তাঁরা যেন বিশ্ব জয় করে ফেলেছেন! মনে মনে তাঁরা ভাবতে থাকেন, বাহ্‌ আমি তো কলকাতায় সুযোগ পেয়ে গেলাম। খুব শিগগিরই বলিউডেও জায়গা করে নেব। আসলে কি বিষয়টা এতটাই সহজ! আমার সহকর্মী ভাই-বোনদের সবার প্রতি আমার একটা অনুরোধ থাকবে, আপনাদের কাছে প্রস্তাব আসবে কিন্তু, সবার আগে নিজের হিসেব বুঝে নিয়ে তারপর কাজ করার সিদ্ধান্ত নিন।’

প্রসঙ্গত, সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের ‘রাজকাহিনী’ ছবিতে অভিনয় করেছেন জয়া আহসান। ১৬ অক্টোবর ছবিটি কলকাতায় মুক্তি পেয়েছে। মুক্তির আগে থেকেই

সংবাদমাধ্যমগুলোতে জয়া আহসানকে নিয়ে চলে ব্যাপক আলোচনা। ছবি মুক্তির পর সে আলোচনা রূপ নেয় সমালোচনায়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে জয়া আহসানের একটি দৃশ্য নিয়ে বেশ সমালোচনাও হয়।

দীপিকাকে নিয়ে অধিকারবোধ বাড়ছে রণবীরের?

Deepika.খবরের শিরোনামে এখন কেবলই বাড়ছে তাঁদের ‘তামাশা’। ঠিক গত কালই রণবীর কপূর বলেছিলেন, তিনি দীপিকা পাড়ুকোনের সঙ্গে সব করতে পারেন! রাত না পোহাতেই খবর এল, দীপিকাকে নিয়ে অধিকারবোধ এক ধাপ বেড়ে গিয়েছে নায়কের!

দীপিকা আর রণবীর এখন যতটা সময় পারছেন, কাটাচ্ছেন এক সঙ্গে! কারও বারণ করারও কিছু নেই! তাঁদের হাতে রয়েছে অমোঘ যুক্তি— নতুন ছবির প্রচার! আর, সেই ছবির প্রচারে বেরিয়ে আরও কাছাকাছি আসছেন দু’জনে! তার সঙ্গে অনবরত দীপিকাকে নিয়ে একের পর এক বিস্ফোরক মন্তব্য করেই চলেছেন রণবীর!

এ বার কী বললেন রণবীর?

ছবির প্রচারে এক সময় দীপিকার কাছে জানতে চাওয়া হয়, রণবীরকে কতটা ভাল ভাবে চেনেন তিনি! পরীক্ষা করার জন্য তাঁকে জিজ্ঞেস করা হয়, বলুন তো, রণবীরের প্রিয় অভিনেতা কে? একটুও দেরি না করে সঙ্গে সঙ্গে জবাব দেন নায়িকা, “রাজ কপূর! ওর ঠাকুর্দা!”

এর পরেই ছিল রণবীরের পালা! তাঁকে যখন জিজ্ঞেস করা হল দীপিকার প্রিয় অভিনেতা কে, নায়কের জবাব ছিল

সংক্ষিপ্ত— “আমি, আর কেউ নয়!”

এটা কি দীপিকার জন্য বাড়তে থাকা রণবীরের অধিকারবোধ? কী মনে হয়?

তা, দীপিকা কী বলছেন এ সব নিয়ে?
রণবীরের খুনসুটিতে কবেই বা আর বাধা দিয়েছেন দীপিকা! ছবিতেই দেখুন না, তিনিই বা কম যান কীসে!
আনন্দবাজার/

মঞ্চের পেছনে নগ্ন হয়ে ক্যামেরাবন্দি মাইলি

miley-cyrusনগ্ন হয়ে খবরের শিরোনাম হওয়াটাকে নিত্য দিনের ঘটনায় পরিণত করেছেন মার্কিন পপ গায়িকা মাইলি সাইরাস। সম্প্রতি একটি অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে মঞ্চের পেছনে নগ্ন হয়ে ক্যামেরাবন্দি হন তিনি।

মার্কিন ফ্যাশন ম্যাগাজিনে ভি-তে ছাপা হয়েছে নগ্ন মাইলির ছবি। অগাস্ট মাসে তোলা ছবিটিতে হাসিমুখে চেয়ারে বসে থাকতে দেখা যায় নগ্ন মাইলিকে।

এর আগে পেপার ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদের জন্য নগ্ন হয়েছিলেন মাইলি। এমটিভি ভিডিও মিউজিক অ্যাওয়ার্ডসের সঞ্চালকের দায়িত্ব পালনকালে খোলামেলা পোশাকে আবির্ভুত হয়ে আলোচনার ঝড় তোলেন। বিশেষ করে অনুষ্ঠানটির রেড কার্পেটে এমন একটি পোশাকে হাজির হন তিনি, যাতে ২২ বছর বয়সী এই তারকার উধ্বর্াঙ্গ প্রায় উন্মুক্ত হয়ে পড়েছিল। এছাড়াও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রায়ই খোলামেলা ছবি দেন মাইলি।

প্রেমে পড়েছেন জ্যাকুলিন-বরুণ

jakulin‘ডিশুম’ ছবির শুটিংয়ে গিয়ে একে অপরের প্রেমে পড়েন জ্যাকুলিন-বরুণ । শুরুর দিকে বিষয়টি নিয়ে সবাই সন্দেহ করেন। পরে শুটিং ইউনিটের বিভিন্ন সূত্রে আসল খবর বেরিয়ে আসে।স্টুডেন্টস অব দ্যা ইয়ার কন্যা আলিয়া ভাট বা ইলিয়ানা ডি ক্রুজ এদের কাউকেই মনে ধরেনি হট বয় বরুণ ধাওয়ানের।

বরুণ তার মনের মানুষ খুঁজে পাওয়ায় বলিউডে এরই মধ্যে নতুন আরেকটি প্রেমিক জুটির উত্থান হলো! জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজ ও বরুণ ধাওয়ান। বেশ কিছুদিন ধরেই সবার নজরে ছিলেন এ দুই তারকা।

জানা যায়, জ্যাকুলিনের প্রতি আগে থেকে মজেছেন বরুণ। অপেক্ষার অবসান হলো ‘ডিশুম’ ছবির শুটিং শুরুর মধ্য দিয়ে। সে সময়ই জ্যাককে মনের কথা জানালেন বরুণ। বিষয়টি আগে গোপন থাকলেও সেটা এখন পরিষ্কার হয়ে গেছে সবার কাছে।

নিজের শোবার ঘরে নাচলেন তিনি। সঙ্গে ছিলেন প্রেমিক বরুণ। দুজনের নাচের একটি ভিডিও জ্যাক সঙ্গে সঙ্গেই আপলোড করলেন ইন্সট্রাগ্রামে। এতে আর বুঝতে বাকি থাকেনি জ্যাক-বরুণের সম্পর্কটা আসলে কি। বিষয়টি নিয়ে বলিউড দুনিয়ায় চলছে জোর আলোচনা। প্রেম করলেও বিয়ে পর্যন্ত তাদের সম্পর্কটি গড়ায় কিনা সেটাই এখন দেখার বিষয়। সম্প্রতি জ্যাকুলিনের ইন্সট্রাগ্রামে ফলোয়ার সংখ্যা বেড়ে গিয়ে ৩ মিলিয়নে গিয়ে দাঁড়ায়। খুশির এ মুহূর্তটি জ্যাক ভিন্ন কায়দায় উদযাপন করলেন।

নিজের আকর্ষণ বারাতে টপলেস জ্যাকলিন মিথিলা

Jacqueline-Mithilaআবারো ফেসবুকে বির্তকিত খোলামেলা ছবি আপলোড সমালোচনা সৃষ্টি করেছেন নবাগতা মডেল ও বাংলাদেশের সনি লিওন দাবিদার জ্যাকলিন মিথিলা।

ভক্তদের জন্য নিজের টপলেস ছবি আপলোড করেছেন এ মডেল।

শুক্রবার রাতে ফেসবুকে টপলেস নগ্ন ছবি পোস্ট করে নিজেকে আলোচনায় আনতে চাইছেন এই উঠতি মডেল ।

একের পর এক খোলামেলা ছবি পোস্ট করে নজর কেরেছেন এই মডেল কন্যা।

যা ফেসবুক ইউজারদের মধ্যে ব্যাপক আলোচনা সমালোচনা পরিলক্ষিত হয়েছে। ছবির পক্ষে বিপক্ষে সমালোচনা ঝড় উঠেছে।

মিডিয়ায় তারকাদের একাধিক বিয়ে

star-biyeমিডিয়ায় তারকাদের বিয়ে নিয়ে এমন ঘটনা নতুন নয়। এর আগেও দেশের অনেক বিখ্যাত তারকাদেরও একাধিক বিয়ের খবর গণমাধ্যমে এসেছে। এ রকম একাধিক বার বিয়ের পিঁড়িতে বসা তারকার মধ্যে থেকে জনপ্রিয় ত্রিশ তারকার বিয়ের গল্প নিয়ে আমাদের আজকের এ প্রতিবেদন।

জহির রায়হান: কথাসাহিত্যিক, চলচ্চিত্র নির্মাতা জহির রায়হান ১৯৬১ সালে চিত্রনায়িকা সুমিতা দেবীকে বিয়ে করেন। পরবর্তীতে ১৯৬৬ সালে সুচন্দাকে বিয়ে করেন তিনি।

জসিম: চিত্রনায়ক জসিম প্রথমে বিয়ে করেন চিত্রনায়িকা সুচরিতাকে। পরবর্তিতে অবশ্য তাদের বিচ্ছেদ হয়।এরপরে তিনি বিয়ে করেন চলচ্চিত্রাভিনেত্রী নাসরিনকে।

আলমগীর: জনপ্রিয় চিত্রনায়ক আলমগীর প্রথমে খোশনুরকে বিয়ে করেন। পরবর্তীতে তাদের দীর্ঘদিনের বিবাহিত জীবনের ইতি টেনে সংগীতশিল্পী রুনা লায়লাকে বিয়ে করেন।

রুনা লায়লা: উপমহাদেশের প্রখ্যাত সংগীতশিল্পী রুনা লায়লা এ পর্যন্ত তিন বার বিয়ের পিঁড়িতে বসেছেন। তার প্রথম বিয়ের হয় খাজা জাভেদ কায়সারের সঙ্গে। দ্বিতীয় বিয়ে করেন সুইজারল্যান্ডের নাগরিক রন ড্যানিয়েলকে এবং সর্বশেষ বিয়ে করেন চিত্রনায়ক আলমগীরকে।

হুমায়ূন আহমেদ: কথাশিল্পী প্রয়াত হুমায়ূন আহমেদ ও অভিনেত্রী শাওনের বিয়ে ছিল শোবিজে রীতিমতো একটি আলোড়ন।হুমায়ূন আহমেদের প্রথম স্ত্রীর নাম গুলতেকিন। এই দম্পতির তিন মেয়ে ও এক ছেলে রয়েছে। হুমায়ূন আহমেদ রচিত ‘আজ রবিবার’ধারাবাহিক নাটকের সেটে তার প্রেমে পড়েন মেয়ে শীলা আহমেদের বান্ধবী মেহের আফরোজ শাওন। এক সময় হুমায়ূন-গুলতেকিনের ৩০ বছরের সংসার ভেঙ্গে যায়। প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে বিচ্ছেদ কার্যকর হওয়ার পরে হুমায়ূন আহমেদ বিয়ে করেন শাওনকে। এই ঘরেও হুমায়ূন আহমেদের দুই ছেলে রয়েছে।

সাবিনা ইয়াসমীন: জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী সাবিনা ইয়াসমীন প্রথম বিয়ে করেন এক ব্যাংক ম্যানেজারকে। এই সংসারে তাদের একটি কন্যা সন্তান আছে। কিন্তু এই বিয়ে বেশি দিন টেকেনি। মনের মিল না হওয়ায় তাদের ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়। এর পরে সাবিনা বিয়ে করেন ওপার বাংলার জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী কবির সুমনকে।

দিতি: দর্শকপ্রিয় চিত্রনায়িকা দিতি বিয়ে করেন তার সহশিল্পী চিত্রনায়ক সোহেল চৌধুরীকে। পরবর্তীতে তাদের ছাড়াছাড়ি হয়। এর পর চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চনকে বিয়ে করে দিতি।

হুমায়ুন ফরিদী : হুমায়ুন ফরিদী প্রথম বিয়ে করেন মিনুকে। এর পরে ১৯৮৪ সালে মিনুর সঙ্গে সর্ম্পকচ্ছেদ করে অভিনেত্রী সুবর্না মুস্তাফাকে বিয়ে করেন।

সোহেল রানা: চিত্রনায়ক সোহেল রানার প্রথম বিবাহ বিচ্ছেদ হয় তার স্ত্রীর শারীরীক অসুস্থার কারণে। এরপর ঢাকা মেডিকেল কলেজের এক সহকারী প্রফেসরকে বিয়ে করেন তিনি।

সুচরিতা: সুচরিতা প্রথমে বিয়ে করেন চিত্রনায়ক জসিমকে। তবে তাদের মধ্যে বিচ্ছেদ হয়। এরপর সুচরিতা বিয়ে করেন প্রযোজক কে এম আর মঞ্জুরকে।

সুবর্ণা মুস্তাফা: সুবর্ণা মুস্তাফা ১৯৮৪ সালে অভিনেতা হুমায়ুন ফরিদীকে বিয়ে করেন। এই দম্পতি দীর্ঘ ২৪ বছর একসঙ্গে সংসার করেন। ২০০৮ সালে সুবর্ণা ডিভোর্স দেন হুমায়ুন ফরিদীকে এবং এর পরপরই বিয়ে করেন নাট্য পরিচালক বদরুল আনাম সৌদকে। সুর্বণা মুস্তাফার চেয়ে বয়সে ১৪ বছরের ছোট বদরুল আনাম সৌদ।

শমী কায়সার: ১৯৯৯ সালে পশ্চিমবঙ্গের চিত্রনির্মাতা রিঙ্গোকে বিয়ে করেন শমী কায়সার। তাদের সংসারের স্থায়িত্ব ছিল দুই বছর। নানা কারণে তাদের মধ্যে দূরত্ব বেড়ে গেলে সেই বিয়ে ভেঙে যায়। এরপর শমী বিয়ে করেন একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক আরাফাতকে।

তাজিন আহমেদ: ছোট পর্দার পরিচালক এজাজ মুন্নাকে ভালোবেসে বিয়ে করেন তাজিন আহমেদ। তাদের সংসারও টেকেনি বেশিদিন। এজাজ মুন্না বিরুদ্ধে তাজিন মাদকাসক্তি ও পরনারী আসক্তির অভিযোগ তোলায় তাদের সংসারে ফাটল ধরে। এর পরে তাজিন বিয়ে করেন এক মিউজিশিয়ানকে।

মমতাজ: ফোক সম্রাজ্ঞী খ্যাত জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী মমতাজ এ পর্যন্ত তিনটি বিয়ে করেছেন। তার প্রথম স্বামী ছিলেন বাউলশিল্পী রশিদ বয়াতি। তার সঙ্গে ছাড়াছাড়ির পর মানিকগঞ্জ পৌরসভা চেয়ারম্যান রমজান আলীর সঙ্গে বিয়ে হয় মমতাজের। কিন্তু সেই বিয়েও টেকেনি। ২০০৮ সালে রমজান আলীর সঙ্গে মমতাজের ছাড়াছাড়ি হয়। এরপর থেকেই নিজের প্রতিষ্ঠিত মমতাজ চক্ষু হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক মঈন হাসান চঞ্চলের সঙ্গে গড়ে উঠে মমতাজের প্রেমের সম্পর্ক, যা বিয়েতে গড়ায়।

জেমস: জনপ্রিয় ব্যান্ড তারকা জেমস ভালোবেসে বিয়ে করেন অভিনেত্রী রথিকে। কিন্তু তাদের এ সংসার বেশিদিন স্থায়ী হয়নি। কেননা জেমস প্রবাসী এক তরুণীর প্রেমে পড়েন ফলে রথির সঙ্গে দাম্পত্যের অবসান ঘটিয়ে দ্বিতীয়বার বিয়ে করেন।

সামিনা চৌধুরী: সংগীতশিল্পী সামিনা চৌধুরী জনপ্রিয় শিল্পী সুরকার ও সংগীত পরিচালক নকীব খানকে বিয়ে করেছিলেন। মতের অমিল হওয়ায় সামিনা-নকিব বিয়ের সম্পর্ক ভাঙ্গে। পরবর্তীতে সামিনা চৌধুরী বিয়ে করেন অনুষ্ঠান নির্মাতা এজাজ খান স্বপনকে।

এজাজ মুন্না: ছোট পর্দার পরিচালক এজাজ মুন্না ভালোবেসে বিয়ে করেন অভিনেত্রী তাজিন আহমেদকে। তবে পরবর্তীতে এজাজ মুন্নার বিরুদ্ধে তাজিন মাদকাসক্তি ও পরনারী আসক্তির অভিযোগ তুললে সংসারে ফাটল ধরে। তাজিনের সঙ্গে বিচ্ছেদ ঘটিয়ে মুন্না লাক্স তারকা ও অভিনেত্রী মমকে বিয়ে করেন।

বিজরী বরকত উল্লাহ: অভিনেত্রী বিজরী বরকত উল্লাহ ও সংগীত পরিচালক শওকত আলী ইমন একে অপরকে ভালোবেসে বিয়ে করেন। তাদের ঘরে ফুটফুটে সুন্দর এক কন্যা সন্তান জন্ম হয়। কিন্তু তাদের এ বিয়ে বেশি দিন টেকেনি। ডিভোর্স হয় তাদের। বিজরী পরে বিয়ে করেন অভিনেতা ইন্তেখাব দিনারকে।

অমিতাভ রেজা: বিজ্ঞাপন নির্মাতা অমিতাভ রেজাকে বাবা-মায়ের অমতে ভালোবেসে বিয়ে করেন অভিনেত্রী জেনি। তবে তাদের সংসার বেশিদিন টেকেনি। এর পরে মডেল মিথিলার ছোট বোনকে বিয়ে করেন অমিতাভ রেজা।

রবি চৌধুরী: সংগীতশিল্পী রবি চৌধুরী ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন সংগীতশিল্পী ডলি সায়ন্তনীকে। কিন্তু তাদের ভালোবাসার সংসার শেষ পর্যন্ত টেকেনি। এর পরে চলতি বছরের ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবসে ভালোবেসে তৃতীয়বারের মতো তিনি বিয়ে করেন। তার বর্তমান স্ত্রী রিফাত আরা রামিজা।

ডলি সায়ন্তনী: সংগীতশিল্পী ডলি সায়ন্তনী প্রথমে বিশিষ্ট গীতিকার রিজভীকে বিয়ে করেন। সেই ঘরে দুটি কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। তবে এ বিয়ে টেকেনি বেশি দিন। এরপরে ডলি ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন সংগীতশিল্পী রবি চৌধুরীকে। কিন্তু তাদের ভালোবাসার সংসারও শেষ পর্যন্ত টেকেনি। এরপরে চট্রগ্রামের এক ব্যাবসায়ীকে বিয়ে করেন তিনি।

সোহেল আরমান: চলচ্চিত্র নির্মাতা আমজাদ হোসেনের ছেলে অভিনেতা ও পরিচালক সোহেল আরমানের সঙ্গে প্রেম করে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন অভিনেত্রী তারিন। বাবা-মায়ের অজান্তে পালিয়ে গিয়ে ২০০১ সালে তারিন বিয়ে করেন সোহেলকে। ঘটনাটি গোপন রাখার চেষ্টা করলেও পরে জানাজানি হয়ে যায়। এরপর বছর ঘুরতে না ঘুরতেই ভেঙে যায় সে সম্পর্ক। পরবর্তীতে সোহেল আরমান দ্বিতীয়বার বিয়ে করলেও সেই সংসারেও ভাঙ্গন ধরে।

অপি করিম: অভিনেত্রী অপি করিম ২০০৭ সালে জাপান প্রবাসী কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার তাসির আহমেদকে বিয়ে করেন। তারপর হঠাৎ তাদের বিচ্ছেদের গুঞ্জন ওঠে। অপির মিডিয়ায় ব্যস্ততা এবং মিডিয়ার লোকদের সঙ্গে মেলামেশাকে কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছিলেন না তাসির। অন্যদিকে তাসিরের বিরুদ্ধে আগে আরো একটি বিয়ে করাসহ নানা অভিযোগ তোলেন অপি। ফলে বছর না গড়াতেই তাদের সংসার ভেঙে যায়। এরপর অপি প্রেমে পড়েন নাট্য পরিচালক মাসুদ হাসান উজ্জ্বলের। তারা বিয়েও করেন। কিন্তু সেই বিয়েও বেশিদিন টেকেনি।

অপূর্ব: ছোট পর্দার অভিনয়শিল্পী অপূর্ব অভিনয়শিল্পী প্রভাকে ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন। কিন্তু প্রভা বিয়ের আগে রাজিব নামক এক ছেলের সঙ্গে প্রেম ও অবাধ মেলামেশায় জড়িয়েছিলেন। অপূর্বর সঙ্গে প্রভার বিয়ের কিছুদিন পরে রাজিব ও প্রভার কিছু ভিডিওচিত্র ফাঁস হলে, অপূর্ব ডিভোর্স দেন প্রভাকে। বিচ্ছেদের পর অপূর্ব নতুন সংসার বাঁধেন নাজিয়া হাসান অদিতির সঙ্গে।

প্রভা: ছোট পর্দার অভিনয়শিল্পী প্রভা ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন ছোট পর্দার অভিনয়শিল্পী অপূর্বকে। কিন্তু বিয়ের পরে প্রভার আগের প্রেমিক রাজিব, প্রভা ও তার অন্তরঙ্গ ভিডিও প্রকাশ করলে, অপূর্ব ডিভোর্স দেন প্রভাকে। বিচ্ছেদের পর মাহমুদ শান্ত নামের এক ব্যবসায়ীকে বিয়ে করেন প্রভা।

হিল্লোল: মিডিয়াপাড়ায় হিল্লোল-তিন্নির বিয়ে বেশ আলোচিত ছিল। এটাও ছিল ভালোবাসার বিয়ে। তিন্নি ধর্মান্তরিত হয়ে মা-বাবাকে ছেড়ে হিল্লোলের কাছে চলে আসেন। এই দম্পত্তির ঘর আলো করে আসে এক কন্যা সন্তান। তবে এই তারকা দম্পত্তির সংসারও টেকেনি। তিন্নির প্রতি মাদক ও পরপুরুষের আসক্তির অভিযোগ তোলেন হিল্লোল। এ নিয়ে দুজনই দুজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ পাল্টা-অভিযোগ তোলেন। যা বিবাহ-বিচ্ছেদ পর্যন্ত গড়ায়। এরপর হিল্লোল আরেক মডেল অভিনেত্রী নওশীনের সঙ্গে নতুন করে সংসার পেতেছেন।

নওশীন: নওশীন নেহরিন মৌ মিডিয়ায় প্রথম কাজ শুরু করেন আরজে হিসেবে। পরে তিনি টিভি অনুষ্ঠানে উপস্থাপনা করে দারুণ জনপ্রিয়তা পান। এক পর্যায়ে তিনি টিভি নাটকেও নিয়মিত কাজ শুরু করেন। মিডিয়ায় কাজ করতে করতেই অভিনেতা হিল্লোলের সঙ্গে ঘনিষ্টতা বাড়তে থাকে। হিল্লোল তার স্ত্রী তিন্নিকে ছেড়ে নওশীনকে বিয়ে করেন। তবে এটি নওশীনের প্রথম বিয়ে ছিল না। মিডিয়ায় কাজ শুরু আগে তিনি বিয়ে করেন প্রেমিককে। কিন্তু সেই বিয়ে টেকেনি বেশি দিন। সেই ঘরের একটি সন্তানও রয়েছে নওশীনের।

আরফিন রুমি: ২০০৮ সালে কণ্ঠশিল্পী আরফিন রুমির সঙ্গে বিয়ে হয় লামিয়া ইলাম অনন্যার । ২০১০ সালের তাদের একটি পুত্র সন্তান হয়। কিন্তু তাদের এ সংসার বেশিদিন টিকেনি। ২০১২ সালে অনন্যার সঙ্গে দাম্পত্য সম্পর্ক ত্যাগ করে আমেরিকা প্রবাসী কামরুননেসাকে বিয়ে করেন রুমি।

হৃদয় খান: কণ্ঠশিল্পী হৃদয় খান। বয়স ২১ না পেরুতেই দুটি বিয়ে সম্পন্ন করেন তিনি। প্রথমে প্যাড বাদক মানিকের শ্যালিকাকে বিয়ে করেন তিনি। সে সংসার ভাঙার পর পরবর্তীতে ভালোবেসে বিয়ে করেন মডেল ও অভিনয় শিল্পী সুজনাকে। সে বিয়েটাও টিকেনি। ১ বছরের মাথায় ডিভোর্স হয় হৃদয়-সুজানার।

সুজানা: মডেল ও অভিনয় শিল্পী সুজানা যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী সামির নামের এক যুবককে ২০০৬ সালে বিয়ে করেন। সে বিয়ে ভেঙ্গে যায়। এর পরে বয়সে ৭ বছরের ছোট কণ্ঠশিল্পী হৃদয় খানের সঙ্গে বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হোন। তবে খুব দ্রুত ভাঙ্গন ধরে পরবর্তী দাম্পত্যেও।

ছবির ঝলক

0119317
Visit Today : 27
Visit Yesterday : 50
Total Visit : 119317
Hits Today : 59
Total Hits : 740911
Who's Online : 1

facebook